উইকিশৈশব:এটা কীভাবে কাজ করে/বেতার গ্রাহক

লন্ডনে বিবিসি সম্প্রচার বিল্ডিংয়ের শীর্ষে রয়েছে একটি লম্বা এন্টেনা, যা চ্যানেলের এর সিগনাল ছড়িয়ে দেয়

রেডিও একটি ল্যাটিন শব্দ যার অর্থ "চারপাশে"। আমাদের চারপাশে তড়িৎ চুম্বকীয় কম্পন রয়েছে। যখন আমরা জিনিস দেখি, আমরা আলোক তরঙ্গকে মস্তিষ্ক-সংকেতে রূপান্তর করি। আলোক তরঙ্গগুলিও ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক কম্পন, আমাদের দৃশ্যমান বর্ণালীর মধ্যে বেগুনি রঙের আলো সবচেয়ে ছোট কম্পাঙ্ক বিশিষ্ট এবং লাল আলো হল সবচেয়ে ধীর কম্পাঙ্ক বিশিষ্ট। আমরা রামধনুকে একটি দৃশ্যমান বর্ণালীর সমন্বয় বলি। এর নিচে রয়েছে ইনফ্রা-রেড (অধোলোহিত) বর্ণালী এবং অবশেষে রেডিও (বেতার) বর্ণালী। রেডিওর কম্পাঙ্ক ও প্রসারের উপরের সারিগুলির অন্যান্য তড়িৎ চুম্বকীয় বিকিরণগুলি হল মাইক্রোওয়েভ, অবলোহিত, দৃশ্যমান আলো, অতিবেগুনী, এক্স রশ্মি এবং গামা রশ্মি।

এই বইয়ের বাকি অংশ বুঝতে আপনাকে এই পৃষ্ঠাটি (বিদ্যুৎ) দেখতে হতে পারে।

একটি কেলাসিত বেতার

বেতারের অংশসম্পাদনা

এই তড়িৎ চুম্বকীয় তরঙ্গগুলি শনাক্ত করতে এবং সেগুলো বৈদ্যুতিক সংকেতে পরিণত করার জন্য একটি বেতার গ্রাহকের প্রথমে যা প্রয়োজন তা হলো একটি এন্টেনা। একটি অ্যান্টেনা সাধারণত ধাতুর একটি রড বা তারের কুণ্ডলী দ্বারা বেষ্টিত একটি ধাতব 'ফেরাইট' রড। এরপর যা প্রয়োজন সেটি হল একটি বেতার তরঙ্গ (আরএফ) পরিবর্ধক এবং নিম্ন বেতার তরঙ্গ পর্যায় ও মধ্যবর্তী পরিবর্ধক, যেন বাতিল বাহক বেতার তরঙ্গ থেকে দরকারহীন অডিও সিগন্যালগুলিকে সহজেই শনাক্ত করে বাতিল করা যায়। এরপর দরকার অডিও ফ্রিকোয়েন্সি (এএফ) এবং পরিশেষে বৈদ্যুতিক সংকেত একটি লাউডস্পিকার বা "ট্রান্সডুসার" দ্বারা শব্দে পরিণত হয়।

এর আবিষ্কারক কে?সম্পাদনা

রেডিও তৈরির দায়িত্বে ছিলেন অনেক বিজ্ঞানী। এদের মধ্যে কয়েকজনের নাম উল্লেখযোগ্য যেমন গুগলিয়েলমো মার্কোনি, নিকোলা টেসলা, আলেকজান্ডার পপভ, স্যার অলিভার লজ, রেজিনাল্ড ফেসেনডেন, হেনরিখ হার্টজ, আমোস ডলবিয়ার, মাহলন লুমিস, নাথান স্টাবলফিল্ড এবং জেমস ক্লার্ক ম্যাক্সওয়েল।

এর শক্তির উৎস কি?সম্পাদনা

বহনযোগ্য বেতার ব্যাটারি থেকে শক্তি পায়। বহনযোগ্য নয় এমন বড় বেতারগুলি দেয়ালের সকেটের সাথে সংযুক্ত।

এটি কিভাবে কাজ করে?সম্পাদনা

বেতার তরঙ্গ হল বিকিরণের আরেকটি রূপ যা তৈরি করা হয় যখন একটি আধানযুক্ত ইলেক্ট্রন তড়িৎ চুম্বকীয় বর্ণালীর রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি বা তরঙ্গ কম্পাঙ্কের (আরএফ) অংশে থাকা কম্পাঙ্কের সাথে কম্পিত হয়। রেডিওতে, এই ত্বরণ একটি অ্যান্টেনায় একটি বিকল্প স্রোতের কারণে ঘটে।

বেতারের কম্পাঙ্কগুলি দশের কয়েকটি নিম্ন গুণিতক হার্টজ (প্রতি সেকেন্ডে কম্পনচক্র) থেকে তিনশ গিগাহার্টজ (যা তিন লক্ষ হাজার মিলিয়ন বা ৩ x ১০ হার্টজ) অবধি হতে পারে। বিনোদন এবং টেলিভিশন ব্যবহারের জন্য তৈরি বাণিজ্যিক বেতার হলো বেতার বর্ণালীর একটি ছোট অংশ। বিভিন্ন চ্যানেল ভিন্ন এবং নির্দিষ্ট কম্পাঙ্ক ব্যবহার করে এবং তাই সাধারণত একে অপরের সাথে উপরিপাতিত না।

কম্পাঙ্ক সম্পর্কে কিছু কথাসম্পাদনা

প্রতিটি কম্পাঙ্কের জন্য একটি তরঙ্গদৈর্ঘ্য আছে। উচ্চ কম্পাঙ্কগুলির স্বল্প-তরঙ্গদৈর্ঘ্য থাকে, এই কারণে "হ্যাম রেডিও" এর জন্য "শর্ট-ওয়েভ অ্যামেচার ব্যান্ড" বা স্থানীয় রেডিওর জন্য ভিএইচএফ (খুব উচ্চ কম্পাঙ্ক) এর মতো অভিব্যক্তি শুনতে পাওয়া যায়। দীর্ঘ তরঙ্গগুলির দীর্ঘ দূরত্ব ভ্রমণের প্রবণতা রয়েছে। তাই ব্রিটেনে একটি বিনোদন চ্যানেল ছিল "লং-ওয়েভ লাইট প্রোগ্রাম"-এর অন্তর্ভুক্ত, যা ১৫০০ মিটার দীর্ঘ বা প্রতি সেকেন্ডে ২০০ হাজার চক্র (200kHz) সম্পন্ন করে এমন তড়িৎ চুম্বকীয় তরঙ্গ সম্প্রচার করত, যা ব্রিটিশ দ্বীপপুঞ্জের যে কোনও জায়গা থেকে পাওয়া সহজ ছিল। (পরিষেবাটি এখন স্থানীয় ভিএইচএফ ট্রান্সমিটার দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়েছে)

দৃশ্যমান বা বেতার কম্পাঙ্কের একটি পৃথক ফোটনের শক্তি একটি পরমাণুর বাইরের কক্ষ থেকে থেকে একটি ইলেকট্রন অপসারণ করার জন্য খুব কম, তাই রেডিও তরঙ্গগুলি অ-আধান্বিত বিকিরণ হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়। এক্স রশ্মি, পারমাণবিক বিটা রশ্মি, ডেল্টা এবং গামা রশ্মি আমাদের দেহে জীবিত কোষের ক্ষতি করতে পারে।

এটি কতটা ক্ষতিকর?সম্পাদনা

উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বেতার তরঙ্গ ক্ষতিকর (আমাদের পুড়িয়ে দিতে পারে)। কিন্তু সৌভাগ্যবশত একটি রেডিও ট্রান্সমিটারের শক্তি দূরত্বের সাথে দুর্বল হয়ে পড়ে। অতএব উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন রেডিও দূরত্বে বিপজ্জনক নয়।

এটা কি করে?সম্পাদনা

একটি রেডিও বাতাসের মাধ্যমে শব্দতরঙ্গ প্রেরণ করে এবং সেই তরঙ্গ একটি গ্রাহক যন্ত্র গ্রহণ করে।

 
অ্যান্টেনা সহ একটি আদর্শ বেতারযন্ত্র

এটি কত ধরনের?সম্পাদনা

বেতার দুই ধরনের হতে পারে।

একটি ধরন সেই সমস্ত বেতার যা গ্রাহকের শোনার জন্য তৈরি। অপর ধরনটি তৈরি শোনা এবং বাক্যালাপ করার জন্য।

পৃথিবীর উপর এর প্রভাব কি?সম্পাদনা

বেতার সারা বিশ্বে মানুষের যোগাযোগের উপায় সহজ করেছে। বিশ্বের এক প্রান্ত থেকে বিশ্বের অন্য প্রান্তে যোগাযোগ করতে সাধারণত যা কয়েক মাস সময় নেয় তা কয়েক মিনিটের মধ্যে করা যেতে পারে। বেতারের মাধ্যমে আগাম আবহাওয়ার খবর দিতে দুর্যোগের সময় মৎস্যজীবীদের সাবধান করা হয়।

এই আবিষ্কারের আগে এর সহায়ক আবিষ্কার কি কি ছিল?সম্পাদনা

একটি বেতার তৈরি করতে পারার আগে, শক্তির রূপ পরিবর্তন নীতি এবং অ্যান্টেনা তৈরি করতে হয়েছিল।

জানার বিষয়সম্পাদনা

একটি বাণিজ্যিক ট্রান্সমিটার হাজার হাজার ওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারে, কিন্তু কাছাকাছি থাকা একটি গ্রাহক যন্ত্র শুধুমাত্র সেই ওয়াটের কয়েক মিলিয়ন ভাগের এক ভাগ শনাক্ত করতে সক্ষম হবে।

আলো এবং রেডিও তরঙ্গের গতির সমান, যথা ২৯,৯৭,৯২,৪৫৮ মিটার প্রতি সেকেন্ড (প্রায় ১,৮৬,২৮২ মাইল প্রতি সেকেন্ড)। প্রতি সেকেন্ডে ৩০০ মিলিয়ন মিটারের একটু কম।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা