ছোট্ট এই গায়ক পাখিটির নাম রেন

পাখিরা মেরুদণ্ডী প্রাণী। এদের শরীরে পালক রয়েছে, যা এদের উষ্ণ রাখে এবং বৃষ্টি বা জল থেকে বাঁচায়। এদের শরীরে এই পালক সাধারণত বিভিন্ন ধরণের হয়। বিভিন্ন পালকের কাজ বিভিন্ন রকমের। কিছু পালক এদের উষ্ণতা দেয় এবং কিছু পালক এদেরকে জল থেকে বাঁচায়। পাখিরা অন্য সব মেরুদণ্ডী প্রাণীর মতই শ্বাসের সঙ্গে অক্সিজেন নেয় এবং কার্বন ডাই অক্সাইড পরিত্যাগ করে। এরা সাধারণত মাছ, পোকামাকড়, কেঁচো এবং উদ্ভিদ খায়। পৃথিবীর প্রতিটি মহাদেশেই পাখি দেখতে পাওয়া যায়। অধিকাংশ পাখিই ডানার সাহায্যে আকাশে উড়তে পারে। কিন্তু কিছু পাখি আছে যারা ডানা মেলে ওড়েনা, বরঞ্চ তারা ডানা ব্যবহার করে জলের মধ্য দিয়ে সাঁতার কেটে যেতে পারে। কিছু পাখি খুব ছোট্ট হয়, যেমন ওপরে ছবিতে দেখানো রেন পাখি। কিন্তু কিছু পাখি এত বড় হয় যে সেগুলি আকারে মানুষের সমান। কিছু বিজ্ঞানী বিশ্বাস করেন যে প্রাগৈতিহাসিক যুগের ডাইনোসরই কালক্রমে পাখিতে পরিণত হয়ে গেছে।

পাখিরা নানাভাবে তাদের খাবার জোগাড় করে নেয়। যদি এমন পাখি হয় যার খাদ্যতালিকায় কেঁচো আছে, সেই সব পাখি তাদের চঞ্চু (পাখির ঠোঁটকে চঞ্চু বলা হয়) দিয়ে মাটির চারপাশে ঠোকর মারবে যতক্ষণ না তারা একটি কেঁচো খুঁজে পায়; অথবা যদি তারা মাটির মধ্যে কেঁচো দেখতে পায়, তারা চঞ্চু দিয়ে সেটিকে তুলে নেবে। কিছু পাখি মাছ খেতে ভালবাসে। মাছ খাওয়ার জন্য, তারা জলের মধ্যে কোন মাছ দেখতে পেলে ওপর থেকে ঠিক তাক করে তার ওপর ঝাঁপ দেবে, তারপর জলের নিচে মুখ ও গলা ডুবিয়ে দিয়ে মাছটিকে চঞ্চু দিয়ে কামড়ে ধরে ওপরে উঠে যাবে।

উদাহরণসম্পাদনা

  1. রাজহাঁস
  2. পেঙ্গুইন
  3. ফ্লেমিঙ্গো
  4. লুন
  5. বাজ
  6. ঘুঘু