উইকিশৈশব:রাসায়নিক মৌল/নিয়ন

পর্যায়ক্রমিক চার্টে নিয়নের অবস্থান।
পর্যায় সারণীতে নিয়নের প্রতীক

মৌলটি দেখতে, স্পর্শে, স্বাদে, অথবা গন্ধে কেমন লাগে?সম্পাদনা

সাধারণ তাপমাত্রায় নিয়ন একটি বর্ণহীন, গন্ধহীন গ্যাস।

মৌলটি কিভাবে আবিষ্কৃত হয়েছিল?সম্পাদনা

১৮৯৮ সালে ইংল্যান্ডের লন্ডনে স্কটিশ রসায়নবিদ উইলিয়াম রামসে এবং ইংরেজ রসায়নবিদ মরিস ট্র্যাভার্স নিয়ন গ্যাসটি আবিষ্কার করেন।

মৌলটির নাম কোথা থেকে এসেছে?সম্পাদনা

গ্রীক শব্দ neos থেকে নিয়ন নামটি এসেছে, যার অর্থ "নতুন"।

তুমি কি জান?

  • আলো তৈরিতে নিয়ন ব্যবহার করা হয়।
  • প্লাজমা অবস্থায় নিয়ন লাল-কমলা আভা নির্গত করে।
  • বায়ু নিয়নের একমাত্র উৎস।

মৌলটি কোথায় পাওয়া যায়?সম্পাদনা

মহাবিশ্বে নিয়ন গ্যাসের সন্ধান পাওয়া খুবই সাধারণ ব্যাপার কিন্তু পৃথিবীতে এই গ্যাসটি বিরল। পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে নিয়ন অল্প পরিমাণে পাওয়া যায়। বায়ুমন্ডলে নাইট্রোজেন, অক্সিজেন এবং আর্গনের পরেই চতুর্থ সর্বাধিক উপাদান হিসাবে এটি পাওয়া যায়। রাসায়নিক ভাবে এটি নিষ্ক্রিয় গ্যাস বলে নিয়ন কোন যৌগ গঠন করে না।

এর ব্যবহার কোথায়?সম্পাদনা

এই গ্যাসটি নিয়ন আলো এবং কিছু লেজার রশ্মি তৈরি করতে ব্যবহৃত হয়। নীচে নিওন প্লাজমা দ্বারা নির্গত বৈশিষ্ট্যযুক্ত লাল-কমলা আভা দিয়ে আলোকিত নিয়নের রাসায়নিক চিহ্নটি একটি উদাহরণ।

 
নিয়ন গ্যাস দ্বারা আলোকিত নিয়নের রাসায়নিক চিহ্ন।

এটা কি বিপজ্জনক?সম্পাদনা

নিয়ন একটি নিষ্ক্রিয় গ্যাস তাই এটি বিষাক্ত নয়। এটি বিপজ্জনকও নয়।