উইকিশৈশব:সৌরজগৎ/ইউরেনাস/আমব্রিয়েল

ভয়েজার ২ থেকে দৃশ্যমান আমব্রিয়েল

আমব্রিয়েল হল ইউরেনাসের একটি উপগ্রহ।

আমব্রিয়েল কত বড়?সম্পাদনা

আমব্রিয়েলের ব্যাস প্রস্থ বরাবর প্রায় ১১৬৯.৪ কিলোমিটার দীর্ঘ, যা পৃথিবীর নিরক্ষীয় ব্যাসের এক দশমাংশ।

আমব্রিয়েলের পৃষ্ঠতল কীরকম?সম্পাদনা

১৯৮৬ খ্রিস্টাব্দের জানুয়ারি মাসে উৎক্ষেপিত ভয়েজার ২ নিরীক্ষক যানের মাধ্যমে আমব্রিয়েলের কিছু কাছ থেকে তোলা ছবি পাওয়া গিয়েছে। প্রাপ্ত এই ছবিগুলো থেকে বোঝা যায় যে আমব্রিয়েলের একটি অন্ধকারাচ্ছন্ন পৃষ্ঠতল রয়েছে, যা ইউরেনাসের অন্য যে কোন উপগ্রহের থেকে অধিক গাঢ় বর্ণের। এর নিরক্ষীয় অঞ্চলে কাছাকাছি উন্ডা নামে উজ্জ্বল কণা সম্বলিত বড় আকারের বলয় দেখতে পাওয়া যায়। অনেকেই এই উন্ডাকে গর্ত বলে মনে করলেও এটি আসলে কি বস্তু তা নিয়ে মতবিরোধ রয়েছে। উন্ডার কাছাকাছি রয়েছে স্কিন্ড নামের গর্ত।

আমব্রিয়েলে একদিনের দৈর্ঘ্য কত?সম্পাদনা

আমব্রিয়েলের একটি দিন পৃথিবীর সময় অনুসারে চারটি দিনের সমান।

ইউরেনাসের চারদিকে এর কক্ষপথের প্রসার কত?সম্পাদনা

ইউরেনাসের চারদিকে আমব্রিয়েলের একবার প্রদক্ষিণ করতে সময় লাগে পৃথিবীর সময় অনুযায়ী চারদিন।

আমব্রিয়েল কী দিয়ে তৈরি?সম্পাদনা

আমব্রিয়েল মূলত জল ও বরফ দিয়ে তৈরি এছাড়াও অন্যান্য উপাদানের মধ্যে রয়েছে সিলিকেট পাথর এবং মিথেন বরফ। মিথেন বরফের অধিকাংশই এর পৃষ্ঠতলে অবস্থিত।

এটির ভর ও খাটের উপর ভিত্তি করে বিজ্ঞানীরা অনুমান করছেন যে এটি ৬০ শতাংশ বড় ৪০ শতাংশ শিলাময় বস্তু দ্বারা গঠিত।

আমব্রিয়েলের মাধ্যাকর্ষণ আমার ওপর কত পরিমাণ অভিকর্ষজ বল দেবে?সম্পাদনা

কেউ আমব্রিয়েলের গাত্রে পদার্পণ করলে তার ওজন পৃথিবীর তুলনায় এক চতুর্দশাংশ বা ০.০২৩ ভাগ হয়ে যাবে। পৃথিবীতে যে বস্তুর বা ব্যক্তির ওজন ১০০ পাউন্ড আমব্রিয়েলে তার ওজন হবে ২.৩ পাউন্ড।

এটি কার নামে নামাঙ্কিত?সম্পাদনা

আমব্রিয়েল নামটি এসেছে আলেকজান্ডার পোপ-এর দ্য রেপ অফ দ্য লক এর "ডাস্কি মেলানকোলি স্প্রাইট" থেকে এবং নামটির ব্যুৎপত্তি লাতিন‌ শব্দ আমব্রা থেকে যার অর্থ ছায়া।

এটি কীভাবে আবিষ্কার হয়?সম্পাদনা

১৮৫১ খ্রিস্টাব্দে ২৪শে অক্টোবর তারিখে উইলিয়াম লাসেল আমব্রিয়েলের সন্ধান পান। একই সময়ের মধ্যে তিনি আরেকটি উপগ্রহ এরিয়েলের খোঁজও পান।